হোম রাজনীতি বিএনপি এখন একটি অভিযোগ সর্বস্ব দল: কাদের

বিএনপি এখন একটি অভিযোগ সর্বস্ব দল: কাদের

11
0
বিএনপি এখন একটি অভিযোগ সর্বস্ব দল কাদের

বিটিএন২৪ রিপোর্ট: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কিছু একটা পেলেই বিএনপি বিদেশিসহ বিভিন্ন মহলের কাছে নালিশ করে। এটি বিএনপির পুরোনো একটি বদভ্যাস। বিএনপি এখন একটি অভিযোগসর্বস্ব দল।

শুক্রবার রাজধানীর বনানীতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এর আগে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে বনানী কবরস্থানে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় সেখানে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরো বলেন, বিএনপি দেশের একটি বড় রাজনৈতিক দল। কিন্তু এ দলটি এখন তাদের অপরাজনীতির কারণে হারিয়ে যাচ্ছে। নিজেদের কিছু করার ক্ষমতা এ দলটির নেই। ফলে বিএনপি নেতারা এখন কোনো একটা ইস্যু পেলে তা নিয়ে আন্দোলনে নামার চেষ্টা করছেন। ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, আবরার ফাহাদ হত্যাকা-কে পুঁজি করে বিএনপি মাঠে নামার চেষ্টা করছে। কিন্তু মানুষ তাদের এ আন্দোলনে সাড়া দেবে বলে আমার মনে হয় না। এর আগেও বিএনপি নিরাপদ সড়ক, কোটা সংস্কার আন্দোলনকে পুঁজি করে কিছু একটা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে।

আবরার ফাহাদ হত্যা নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বর্বরোচিত এ হত্যাকা-ের পর সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। দ্রুত মামলার চার্জশিট হবে আশা করছি। এরপরই দ্রুত এ মামলার বিচার নিষ্পত্তি হবে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, গণতান্ত্রিক রাজনীতির জন্য একটি শক্তিশালী বিরোধী রাজনৈতিক দলের প্রয়োজন রয়েছে। আমরাও চাই বিএনপি সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করুক। নালিশের রাজনীতি বাদ দিয়ে বিএনপি দেশ ও জনগণের স্বার্থে ইতিবাচক রাজনীতি করবে বলে আমরা আশা করছি। শেখ রাসেল হত্যাকা-ের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। ওই সময় শেখ রাসেলের বয়স ছিল ১০ বছর। এ অবুঝ শিশু রাসেলকেও ঘাতকরা রেহাই দেয়নি।

এদিকে, গণভবনে রোববার যুবলীগের বৈঠকে সংগঠনের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে না ডাকা নিয়ে আলোচনার মধ্যেই ওবায়দুল কাদের বলেন,আওয়ামী লীগের এই সহযোগী সংগঠনে থাকার বয়স বেঁধে দেওয়ার বিষয়েও আলোচনা হবে সেই বৈঠকে। তিনি বলেন, যুবলীগ নিয়ে রোববার গণভবনে মিটিং ডেকেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চেয়ারম্যানকে সেখানে ডাকা হয়নি। সেখানে কাকে ডাকবেন আর কাকে ডাকবেন না, সেটা প্রধানমন্ত্রীর বিষয়। এটা পার্টি অফিসে ডাকা হলে আমি বলতে পারতাম। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা যুবলীগকে গণভবনে ডেকেছেন। সেখান থেকে যাদের বলা হয়েছে, তারাই মিটিংয়ে যাবেন। সাত বছর ধরে যুবলীগের চেয়ারম্যানের পদে থাকা ওমর ফারুকের বয়স এখন ৭১ বছর, যা নিয়ে সংগঠনের ক্ষোভ ও রাজনীতির অঙ্গনে আলোচনা রয়েছে।

যুবলীগের আসন্ন সপ্তম কংগ্রেস বয়সের কোনো সীমা টেনে দেওয়া হচ্ছে কি না- সেই প্রশ্নে ওবায়দুল কাদেরের সামনে রেখেছিলেন একজন সাংবাদিক। উত্তরে তিনি বলেন, কোন বয়স পর্যন্ত যুবলীগ করা যাবে, সেসব আলোচনা রোববারের মিটিংয়েই করা হবে। দুর্নীতি, অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা ও টেন্ডারবাজির অভিযোগে সম্প্রতি যুবলীগের বেশ কয়েকজন নেতা গ্রেফতার হওয়ার পর সংগঠনটির চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর নামও আলোচনা আসে। তার ব্যাংক হিসাব তলব করার পাশাপাশি বিদেশ যাওয়ায় ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এ পরিস্থিতিতে অনেকটাই আড়ালে চলে যান ওমর ফারুক। সর্বশেষ গত ৩ অক্টোবর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে তাকে গণভবনে দেখা যায়। এরপর থেকে প্রকাশ্যে কোনো অনুষ্ঠানে বা সভায় তিনি আসেননি। গত ১১ অক্টোবর তাকে ছাড়াই যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সভা হয়। এর মধ্যেই সংবাদমাধ্যমে খবর আসে, ২৩ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস সামনে রেখে সংগঠনের নেতাদের রোববার গণভবনে ডেকেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তবে ওমর ফারুক চৌধুরীকে সেখানে ডাকা হয়নি।

শেখ রাসেলের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।