হোম আন্তর্জাতিক ফের উত্তপ্ত রাখাইন, ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

    ফের উত্তপ্ত রাখাইন, ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

    10
    ফের উত্তপ্ত রাখাইন, ইন্টারনেট সেবা বন্ধ
    ফের উত্তপ্ত রাখাইন, ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

    বিটিএন২৪ ডটকম: মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার জেরে টেলিকম সংস্থাগুলিকে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছে। রোহিঙ্গাদের রাজ্যটিতে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে জাতিগত বিদ্রোহীদের মধ্যে সহিংসতা বৃদ্ধির ফলে এলাকাটিতে উত্তেজনা বেড়ে যায়, যার ফলে কর্তৃপক্ষ শনিবার (২২ জুন) এই অঞ্চলের ইন্টারনেট সেবা বন্ধের নির্দেশ প্রদান করে।

    দেশটির রাখাইন ও প্রতিবেশি চিন রাজ্যের ৮টি শহরে সাময়িকভাবে ইন্টারনেট সেবা বন্ধের নির্দেশ প্রদান করেন দেশটির পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়। দেশটির প্রধান সারির একটি টেলিকম কোম্পানি টেলিনর গ্রুপ জানায়, সব টেলিকম কোম্পানীকে এই অঞ্চলের ‘অবৈধ ক্রিয়াকলাপের সমন্বয় সাধন বন্ধ অ শান্তি রক্ষায় ইন্টারনেট কার্যক্রম ব্যবহার স্থগিত’ করা নির্দেশ দিয়েছে। শুক্রবার (২১ জুন) ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়।

    টেলিনর আরও জানায়, ‘টেলিনর মিয়ানমার মন্ত্রণালয়ের কাছে শাটডাউন সম্পর্কে যুক্তিসঙ্গতভাবে আরও স্পষ্ট কারন জানাতে চেয়েছে। মানবিক উদ্দেশ্যে টেলিকম পরিষেবার অ্যাক্সেসের মাধ্যমে মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষা করার ওপর জোর দিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে কারন জানতে চাওয়া হয়েছে।’

    পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র এই বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করে অন্য এক মুখপাত্রকে প্রশ্ন করতে বলেছেন। বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্স’ তাকে ফোন করলে তিনি তার উত্তরই দেননি।

    ২০১৭ সালে মিয়ানমারের সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ওপর সামরিক বাহিনীর জাতিগত নিধনযজ্ঞ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযান থেকে বাঁচতে সেসময়ে প্রায় ৭ লাখ ৩০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে পালিয়ে গেলে রাখাইন রাজ্যটি বিশ্বব্যাপী দৃষ্টি আকর্ষণ করে। গণহত্যা, গণধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে জাতিসংঘের তদন্তকারীরা দেশটির সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করার আহ্বান জানিয়েছে। কিন্তু, মিয়ানমার সেনাবাহিনী বারবার এই অভিযোগ অস্বীকার করে।

    সম্প্রতি, বৌদ্ধ জাতিগত দেশটির রাখাইন রাজ্যটিতে আরাকান আর্মি ও মিয়ানমার আর্মির মধ্যে সহিংসতা ছড়িয়ে পরে। রাখাইনদের মধ্যে থেকেই বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান সেনার নিয়োগ প্রদান করা হয়। রাজ্যটিতে সায়ত্ত্বশাসন প্রতিষ্ঠায় আরাকান আর্মি বহুদিন ধরেই কেন্দ্রিয় সরকারের সঙ্গে লড়াই করে আসছে। ‘রয়টার্স’

    একটি উত্তর ত্যাগ

    অনুগ্রহ করে মন্তব্য করুন
    অনুগ্রহ করে আপনার নাম প্রবেশ করুন