হোম আন্তর্জাতিক ট্রাম্পের হামলার হুমকি মানবতাবিরোধী অপরাধ

ট্রাম্পের হামলার হুমকি মানবতাবিরোধী অপরাধ

4
ট্রাম্পের হামলার হুমকি মানবতাবিরোধী অপরাধ

বিটিএন২৪ ডটকম: ইরানের ক্ষমতাধর জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার পর চরম সামরিক উত্তেজনার মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দেশটির সাংস্কৃতিক স্থাপনায় হামলার যে হুমকি দিয়েছেন তাকে মানবতাবিরোধী অপরাধ বলে অভিহিত করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউমান রাইটস ওয়াচ।

কাসেম সোলেইমানির মৃত্যুর পর ইরানের সর্বোচ্চ নেতা শত্রুদের জন্য কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে বলে হুমকি দেয়ার পর ট্রাম্প বলেন, ইরান যদি প্রতিশোধের হামলা করে তাহলে তাদের এসব গুরুত্বপূর্ণ সাংস্কৃতিক স্থাপনায় শক্তিশালী হামলা করা হবে।

ইরানের রয়েছে সুপ্রাচীন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। শুধুমাত্র ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাতেই আছে দেশটির বিশটি সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যবাহী স্থানের নাম। এদিকে হুমকি দিয়ে ফেঁসে গেছেন ট্রাম্প। কেননা আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে ঐতিহ্যবাহী স্থাপনায় সামরিক হামলা যুদ্ধাপরাধের শামিল।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহাসিক স্থাপনায় হামলা চালানোর যে হুমকি দিয়েছেন তা সরাসরি যুদ্ধাপরাধ। পৃথক বিবৃতিতে হুমকি দেয়া বন্ধ করে আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থা দুটি।

গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় বাগদাদে ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলেইমানির মৃত্যুর পর ইরান হুমকি দিলে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, তিনি ইরানের বহু সাংস্কৃতিক স্থাপনাসহ দেশটির মোট ৫২টি স্থাপনা চিহ্নিত করেছেন এবং মার্কিন স্বার্থে আঘাত আসলে এসব স্থাপনায় হামলা চালানো হবে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এক বিবৃতিতে বলেছে, আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করার ঘোষণা দেয়া উচিত যুক্তরাষ্ট্রের। হিউমান রাইটস ওয়াচ বলেছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরানের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহাসিক কেন্দ্রগুলোতে হামলার যে হুমকি দিয়েছেন তা বাস্তবায়ন করা হলে তা হবে মারাত্মক যুদ্ধাপরাধ।

হিউমান রাইটস ওয়াচের অ্যান্ড্রু প্রাসো বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্টের উচিত তার বক্তব্য প্রত্যাহার করা তারপর এ ঘোষণা দেয়া যে, তিনি এ ধরনের হামলার নির্দেশ দেবেন না। যুক্তরাজ্য বলেছে, কোনো দেশের সাংস্কৃতিক স্থাপনায় হামলার বিরোধী তারা।